আয়া দিয়ে গৃহবধূর সন্তান প্র’সব করা’লেন নার্স, সাথে সাথেই নবজাতকের মৃ’ত্যু-

আয়া দিয়ে গৃহবধূর সন্তান প্র’সব করা’লেন নার্স, সাথে সাথেই নবজাতকের মৃ’ত্যু-

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজে’লায় একটি অনুমোদনহীন নার্সিং হোমে আয়া দিয়ে প্রসব করানোর সময় নবজাতকের মৃ’ত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় ক্লিনিকের মালিক ও তার স্ত্রী’ বীরগঞ্জ হাসাপাতালের স্টাফ নার্সকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। রোববার ভোর ৫টার দিকে বীরগঞ্জ নুর ল্যাব অ্যান্ড সিটি ক্লিনিক নার্সিং হোমে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার ভোরে পৌর শহরের মাকড়াই গ্রামের রাজা মিয়ার স্ত্রী’ ফরিদা বেগমের প্রসব ব্যথা শুরু হয়। পরে তাকে বীরগঞ্জ নুর ল্যাব অ্যান্ড সিটি ক্লিনিক নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়।

সেখানে আয়া দিয়ে প্রসব করানোর সময় ফরিদার নবজাতকের মৃ’ত্যু হয়। এ সংবাদ জানতে পেরে বীরগঞ্জ থানা পু’লিশের ওসি শাকিলা পারভীন ক্লিনিকে উপস্থিত হলে সেখানে সরকারি হাসপাতালের ওষুধ দেখতে পান।

তাৎক্ষণিকভাবে বীরগঞ্জ উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা ও ভ্রাম্যমাণ আ’দালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ামিন হোসেনকে খবর দেন ওসি। ভ্রাম্যমাণ আ’দালতের বিচারক মো. ইয়ামিন হোসেন ক্লিনিকে তল্লা’শি চালিয়ে বেশ কিছু সরকারি হাসপাতালের ওষুধ উ’দ্ধার করেন।

পরে ক্লিনিকের মালিক পৌর শহরের ফিসারি মোড় এলাকার হাফিজ ভেন্ডারের ছেলে নুর আলমের বাড়িতে অ’ভিযান চালান। সেখানেও বেশ কিছু সরকারি ওষুধ পাওয়া যায়।

এরপর ভ্রাম্যমাণ আদলতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ক্লিনিক মালিক নুর আলম ও তার স্ত্রী’ বীরগঞ্জ সরকারি হাসপাতালের নার্স ফাহিমা আক্তারকে আ’ট’ক করে থানায় নিয়ে যান।

ভ্রাম্যমাণ আ’দালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ামিন হোসেন বলেন, গ্রে’ফতারকৃতদের বি’রুদ্ধে সরকারি ওষুধ রাখার অ’প’রাধে ও ক্লিনিকে শি’শু মৃ’ত্যুর ঘটনায় পৃথক দুটি মা’মলা করা হয়েছে। একই সঙ্গে অনুমোদনহীন ক্লিনিকটি সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 banglareport71.com