মিন্নির জামিন নিয়ে দু:সংবাদ দিলেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা

মিন্নির জামিন নিয়ে দু:সংবাদ দিলেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হ’ত্যা মামলায় তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন ঠেকাতে নিয়মিত আপিল (লিভ টু আপিল) আবেদন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

হাইকোর্টে দেয়া মিন্নির স্থায়ী জামিন আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতে বহাল থাকার পর সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কেএম জাহিদ সারওয়ার কাজল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘মিন্নির জামিন-সংক্রান্ত মামলায় হাইকোর্টের রায়টি হাতে না পাওয়ায় আমরা চেম্বার জজ আদালতে ওই রায় স্থগিত চেয়ে আপিল করেছিলাম। কিন্তু চেম্বার আদালত আজ নো অর্ডার দিয়েছেন। তবে এরই মধ্যে রোববার (১ সেপ্টেম্বর) মিন্নির জামিনের বিষয়ে হাইকোর্টের দেয়া রায় প্রকাশ হওয়ায় আমরা এখন নিয়মিত আপিল আবেদন (লিভ টু আপিল) করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল বরাবর একটি নোটও জমা দিয়েছি আমাদের পক্ষ থেকে।’

এর আগে সোমবার সকালে মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত চেয়ে করা রাষ্ট্রপক্ষের আপিল আবেদনের ওপর নো অর্ডার (কোনো আদেশ নয়) দেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত। ফলে মিন্নির জামিনে মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানান আইনজীবীরা। রাষ্ট্রপক্ষে আবেদনের শুনানি নিয়ে আপিল বিভাগের বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর চেম্বার জজ আদালত এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ মিন্নির পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জেএড আই খান পান্না ও সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দীন। তাদের সঙ্গে ছিলেন জামিউল হক ফয়সাল। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জাহিদ সারোওয়ার কাজল ও মো. সারোয়ার হোসেন বাপ্পী। এ সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এর আগে রোববার (১ সেপ্টেম্বর) রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশের পর সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে মিন্নির জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করা হয়। গত ২৯ আগস্ট মিন্নির জামিনের বিষয়ে জারি করা রুল যথাযথ উল্লেখ করে রায় ঘোষণা করেন হাইকোর্ট। তবে জামিনে মুক্ত হওয়ার পর মিন্নিকে মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলায় নির্দেশ দেন আদালত।

এরপর গত ১ সেপ্টেম্বর বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চের স্বাক্ষরের পর মিন্নির জামিনের রায় প্রকাশিত হয়। পরে ওই রায়ের বিরুদ্ধে মিন্নির জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল আবেদন জানায়। তবে ওই আবেদনে কোনো সাড়া না পেয়ে নিয়মিত আবেদনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা।

গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কু’পিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি হামলাকারীদের সঙ্গে লড়াই করেও তাদের দমাতে পারেননি। গুরুতর আহত রিফাতকে ওইদিন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচ-ছয়জনকে অজ্ঞাত আসামি করে বরগুনা থানায় একটি হ’ত্যা মামলা করেন।

পরে ১৬ জুলাই সকাল পৌনে ১০টায় মিন্নিকে তার বাবার বাড়ি বরগুনা পৌর শহরের নয়াকাটা-মাইঠা এলাকা থেকে পুলিশ লাইনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

পরদিন (১৭ জুলাই) মিন্নিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর কয়েক দফা আবেদন জানালেও নিম্ন আদালতে জামিন মেলেনি মিন্নির। পরে একই মামলায় গত ১৮ আগস্ট দ্বিতীয় দফায় জামিন চেয়ে মিন্নি হাইকোর্টে আবেদন করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 banglareport71.com