কুকীর্তি ফাঁস হওয়া সেই ইউএনওর বিরুদ্ধে যে কঠিন সিদ্ধান্ত নিলো জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়

কুকীর্তি ফাঁস হওয়া সেই ইউএনওর বিরুদ্ধে যে কঠিন সিদ্ধান্ত নিলো জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়

ঘুষ-দুর্নীতির অর্থ আড়াল করতে প্রেমিকার নামে গোপনে ব্যাংক একাউন্ট খোলার অভিযোগ উঠেছে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বিরুদ্ধে। সেই অ্যাকাউন্টে লেনদেন হয়েছে লাখ লাখ টাকা।

অথচ ব্যাংক অ্যাকাউন্টের কথা জানতেন না কথিত প্রেমিকা। অভিযুক্ত আসিফ ইমতিয়াজ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই নারীকে দিনের পর দিন ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ ভুক্তভোগীর। প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে জেলা প্রশাসন।

এঘটনায় তাহিরপুর উপজেলা থেকে সেই কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মো. আবদুল লতিফ স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে তাকে বদলির বিষয়টি জানানো হয়।

আসিফ ইমতিয়াজ প্রশাসন ক্যাডারের ৩০তম ব্যাচের কর্মকর্তা। ঘটনার সময় কর্মরত ছিলেন চট্টগ্রাম ডিসি অফিসের ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা হিসেবে। কর্মসংস্থান ব্যাংকের লোন পাইয়ে দেয়ার কথা বলে কথিত প্রেমিকার কাছ থেকে কাগজ পত্র নিয়ে ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট খোলেন কদমতলী শাখার স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকে।

ভুক্তোভোগি নারী ঢাকার তেজগা থানায় সাধারণ ডায়েরি করে অভিযোগ জানান ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে। এরপর ব্যাংক অ্যাকাউন্টটি আপাতত বন্ধ রাখা হলেও আনুষ্ঠানিক ভাবে এ বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হয়নি কতৃপক্ষ।

এছাড়াও ভুক্তভোগির অভিযোগ, স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ঢাকার বিভিন্ন ফ্ল্যাট বাসা এবং হোটেলে সময় কাটিয়েছেন সিনিয়র সহকারী সচিব পদমর্যাদার এ কর্মকর্তা।

অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ বলেন, আসিফ ইমতিয়াজের বিরুদ্ধে অভিযোগ তো কয়েকটা। অভিযোগকারী তার অভিযোগের সপক্ষে যতটুকু তথ্যপ্রমাণ দিতে পেরেছেন সেটুকুর প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে।’

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার বিষয়ে জানতে চাইলে ডিসি বলেন, ‘তদন্তকারী কর্মকর্তা স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকে চিঠিও দিয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাংক থেকে জানানো হয়েছে, আদালতের আদেশ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমতি ছাড়া তারা এ বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে পারবে না।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 banglareport71.com