বী ভৎসভাবে শিশুকে হ ত্যা, কারা জড়িত জানালেন পুলিশ সুপার

বী ভৎসভাবে শিশুকে হ ত্যা, কারা জড়িত জানালেন পুলিশ সুপার

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় ৬ বছরের শিশু তুহিনকে নৃ শংসভাবে হ ত্যায় তার প রিবারের সদস্যদের সম্পৃ ক্ততা পেয়েছে পুলিশ।

লা শের সু রতহাল প্র তিবেদন শেষে সোমবার স ন্ধ্যায় দি রাই থানায় এক সংবাদ স ম্মেলনে এ মন ত থ্য জানান পুলিশ সুপার (এসপি) মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, ‘শিশু তু হিন হ ত্যার পর প্রা থমিক জি জ্ঞাসাবাদের জন্য নি হতের বা বা আ বদুল বাছির, চা চা আবদুল মছ ব্বির, জমশেদ মিয়া,

নাছির ও জাকিরুল, তুহিনের চাচি ও চাচাতো বোনকে থানায় নিয়ে আসা হয়। থানায় প্রাথমিকভাবে জি জ্ঞাসাবাদে পরিবারের তিন সদস্য হ ত্যায় জ ড়িত থাকার কথা স্বী কার করেছেন। বি স্তারিত জা নার জন্য আমরা আরও জি জ্ঞাসাবাদ করব।’

নি হত শি শু তুহিনের বাবা এলাকার অন্য একটি হ ত্যা মা মলাসহ ক য়েকটি মা মলার আসামি। মা মলার কা রণে তাদের পরিবারের লো কজন এমন কাজ করতে পারে বলে জা নান পুলিশ সুপার।

সংবাদ স ম্মেলনে এসপি মিজানুর আরও বলেন, আমরা তু হিনের পরিবারের ৭ জনকে জি জ্ঞা সাবাদের জন্য নিয়ে এসেছিলাম। তাদের জিজ্ঞা সাবাদে ২/৩ জনের স ম্পৃ ক্ত তা আমরা পেয়েছি। যে ২/৩ জন হ ত্যা কা ণ্ডের স ঙ্গে জ ড়িত তারা পুলিশের কাছে বিষয়টি স্বী কার করেছে।

পুলিশ সু পার যো গ করেন, ‘প্র তি হিংসাবশ ত হতে পারে, পূ র্ব শত্রু তার জের ধরে প্র তিপক্ষ কে ফাঁ সাতে হতে পারে, আবার মা মলা সং ক্রা ন্ত বিষয়ে এ হ ত্যাকা ণ্ড ঘটতে পারে; তদ ন্তের স্বা র্থে সবকিছু বলা যাচ্ছে না।’

মিজানুর রহমান আরও বলেন, নি হতের বা বাসহ প রিবারের ক য়েকজন স দস্য বি ভিন্ন মা মলার আসামি। এলা কায় তাদের এ কাধিক প্রতি পক্ষ রয়েছে। এ ক প ক্ষ আ রেক প ক্ষকে ঘা য়েল করতে চায়।

তবে কারা স রাসরি খু ন করে ছে তা এ ড়িয়ে যান অতি রি ক্ত পু লিশ সু পার মি জানুর রহমান।

তিনি বলেন, এখনও জি জ্ঞা সাবাদ করা হচ্ছে, সবাইকে আ টক দেখানো হচ্ছে না। পু রোপুরি জি জ্ঞাসাবাদ শেষ হলে হ ত্যা মা মলা করা হবে।

রো ববার রা তের খা বার খে য়ে তু হিনের পরিবারের সবা ই ঘু মিয়ে পড়েন। রাত ৩টার দিকে তু হিনের চা চাত বোন সাবিনা বেগম ঘরের দর জা খোলা দেখে চিৎ কার শু রু করলে পরি বারের সদ স্যরা জেগে উঠে দেখেন তু হিন ঘরে নেই।

খোঁ জাখুঁ জির প র বা ড়ি থে কে কি ছু দূ রে মস জিদের পাশে এক টি গা ছে ঝুল ন্ত অ বস্থায় তার লা শ পাওয়া যায়। পুলিশ লা শ উ দ্ধারের স ময় শি শু টির পে টে দুই টি ছু রি গাঁ থা ছিল। তার কা ন ও লি ঙ্গও কে টে নেয় হ ত্যা কা রীরা।

নি থর শিশুটির পে টে বি দ্ধ অ বস্থায় দু টি ধা রালো ছু রিও পাওয়া যায়। তা ৎক্ষণিক ভাবে পু লিশ হ ত্যার র হস্য উদঘাটন ক রতে পা রেনি। তবে ৪ ব ছর আগের একটি হ ত্যাকা ণ্ড নি য়ে এ লাকায় বি রোধ চলছিল।

ওই বিরোধে শি শুটির বা বা আবদুল বছির মিয়া প ক্ষ ভু ক্ত ছিল। ত বে ওই ঘটনার স ঙ্গে এই হ ত্যার কো নো স ম্পর্ক আছে কিনা তা জানা যায়নি। এ ঘ টনায় উপজেলার রা জানগর ই উনিয়নের কে জাউড়া গ্রা মে তো লপা ড় শু রু চলছে।

নি হত তু হিনের স্ব জনরা জানান, রো ববার প্র তিদিনের ম তো রা তের খা বার খে য়ে পরি বারের সবাই ঘু মিয়ে পড়েন। রাত ১২টার দিকে শি শু তু হিন প্রকৃ তির ডা কে সা রা দিয়ে মা কে নিয়ে বাহিরে যান।

তারা পরে ঘরে এসে ঘু মিয়ে পড়েন। রাত ৩টার দিকে মা-বাবা হঠাৎ দরজা খোলার শ ব্দ শু নে ঘু ম থেকে জেগে দেখেন তু হিন ঘরে নেই। পরে প রিবারের লো কজন খোঁ জাখুঁজি শু রু করেন। এ কপর্যায়ে বা ড়ির পা শে র ক্ত দে খতে পান।

পরে খা নিকটা দূ রে সু ফিয়ান মো ল্লার উ ঠোনে মস জিদের পা শে গাছে ঝু ল ন্ত অ বস্থায় তু হিনের গ লা কা টা লা শ দেখতে পান। এস আই তাহে র জা নান, সুরতহাল রি পোর্ট তৈরি করে ময়নাতদ ন্তের জন্য লা শ সুনা মগঞ্জে পাঠা নো হয়েছে।

একটি সূ ত্র জানান, চা র বছ র আগে গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী নিলুফা হ ত্যার ঘটনা নিয়ে কে জাউরা গ্রাম দু ভাগে বি ভ ক্ত হয়ে পড়ে। এ কপক্ষে আছেন এলাকার এ লাছ মিয়া, অ পর প ক্ষে আ ছেন আ নোয়ার মে ম্বার।

নি হত শিশু টির পি তা আব দুল ব ছির এলা ছের পক্ষে। সোম বার নি লুফা হ ত্যা মা মলা নি য়ে আপ স মী মাংসার কথা ছিল। সূ ত্র জা নায়, শি শুটির পি তা বছির মিয়া আ পসের প ক্ষে অ বস্থান নি লেও এ লাছ মি য়াসহ কয়েকজনই আপসের বিপ ক্ষে অব স্থান নেন।

এলাকাবাসীর অনেকে বলছিলেন, নীলুফার হ ত্যা নি য়ে সৃ ষ্ট বি রোধ অনে কেই জি ইয়ে রা খতে চাইছেন। তা রাই এই হ ত্যাকা ণ্ড ঘ টিয়ে থা কতে পা রেন। ত বে শি শুর দে হে বি দ্ধ ছো রার বাঁ টে পেন্সি লে সো লেমান ও সা লাতুল না মে দুটি নাম লেখা রয়েছে।

এ দু’ জনই আনোয়ার মে ম্বারের পক্ষে র লোক। শি শুটির বা বা আ বদুল ব ছির মিয়া জানান, গ্রাম্য বিরো ধ থাকলেও আমার এই ছেলেকে নৃ শং সভাবে হ ত্যা করা হবে, তা আমি বি শ্বাস করি না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 banglareport71.com